সংবাদ ব্রিফিং

জাহিদ হাসানের টেনশন টিউশন






tention-tution-jahid
গৃহশিক্ষক জাহিদ হাসান। চাকরি না থাকায় শহরে টিউশন করেই গ্রামের বাড়িতে টাকা পাঠান। তবে ছাত্রী যদি পাস করে, তাহলে মাইনে না দিলেও তাকে শিক্ষকের সঙ্গে বিয়ে দেওয়া হবে এমন শর্তে রাজি হয়ে বেশ বিপদে পড়েন জাহিদ হাসান।

সোহেল রানার রচনা ও তারেক মিয়াজীর পরিচালনায় গৃহশিক্ষকের এ ভূমিকায় অভিনয় করেছেন জাহিদ হাসান। নাটকটি প্রচার হবে ৮ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ২০ মিনিটে। এ নাটকে আরো অভিনয় করেছেন, তানজিকা আমিন, তাসনুভা এলভিন, শরিফুল প্রমুখ।

নাটকে দেখা যাবে, গৃহশিক্ষক হিসেবে যথেষ্ট সুনাম আবিরের। তাই ছাত্র-ছাত্রীর চেয়ে তিনিই সব সময়পড়া পড়াশোনার চাপে থাকেন। মফস্বল থেকে উঠে আসা নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলে হয়ে লাখ টাকা ঘুষ দিয়ে চাকরি যোগানোর সামর্থ্য নেই তার। এ কারণেই প্রাইভেট পড়ানোকে আয়ের উৎস হিসেবে বেছে নিয়েছেন।

কিন্তু তার রাতের ঘুম হারাম করে দেয় পদ্ম নামের একটি মেয়ে। দুইবার ইন্টারমিডিয়েট ফেল করা পদ্মকে পাসের নিশ্চয়তা দিয়েই পড়ানোর সুযোগ পায় আবির। কিন্তু পড়াশোনার চেয়ে টিভি দেখা আর আড্ডা দেওয়াই বেশি প্রিয় পদ্মর কাছে। বিষয়টা যতবারই আবির তার বাবা-মাকে জানিয়েছে, পদ্ম ততবারই আবিরকে বিশেষ চাপের উপর রেখেছে। যেমন, অযথাই নোট তৈরি করে দেওয়া, নিজে বই না পড়ে শিক্ষককে দিয়ে পড়িয়ে ও ব্যাখ্যা করিয়ে নেওয়া ইত্যাদি।

এভাবে আরো কিছুদিন চলার পর, পদ্ম বিরক্ত হয়ে যায়। তাই সিদ্ধান্ত নেয়, বাবার পছন্দ করা শিক্ষক আবিরের কাছে আর সে পড়বেনা। কিন্তু মনের অজান্তেই স্বভাবে শান্ত আর বোকা চেহারার আবিরকে ভাল লেগে যায় সরলতার কারণে। তাই সুযোগ পেলেই কথা বলার ছলে পদ্ম তার ভালোলাগার কথা বোঝাতে চায় আবিরকে। কিন্তু নিজের সীমাবদ্ধতার কথা চিন্তা করে আবির বুঝেও না বোঝার ভান করে বিষয়টি এড়িয়ে যায়। এভাবেই এগিয়ে চলে নাটকের মূল গল্প।